iTPriyoBD

Thursday, 19 September 2019

Bestchange site earning tips tricks

September 19, 2019 0
Bestchange site earning tips tricks

What is BestChange ?
BestChange– is a free online service for finding electronic money exchangers, online banking and money
transfers. There are more than 50 exchangers registered at BestChange and the service receives information about
currency exchange rates and commission fees from each of them in real time.
How much you can earn???
You will get 0.35$ Per Refer
1 visitor of your link => 0.04
100 visitor => 4$
1000 visitor => 40$
Bestchange Payment Option & Minimum Withdraw?
Minimum Withdraw : 1$
Withdraw Option : Bitcoin, Paypal, Perfect Money OKPay, Payeer, QIWI currencies.
How To Create Bestchange Affiliate Account?
Step by step guide
Step 1: Go to https://www.bestchange.com/?p=994439 this Registration Link
Step 2: Click On Affiliate Program
CLICK on the " follow this link " button
Step 3: After loading this page, Scroll down and click On
“”Follow this link””
Fill out the from
Step 4: You will get a registration form. Fill up this from.
Step 5: After Completing Registration , Login to your account
and get your affiliate link.
Final Step : Share your affiliate link and earn money.
Happy Earning
Must Join My Refer : https://www.bestchange.com/?p=994439

Sunday, 28 April 2019

Digital Marketing কি | ডিজিটাল মার্কেটিং ক্যারিয়ার

April 28, 2019 0
মার্কেটিং সম্প্রসারণ আজ খুব দ্রুত ঘটছে। কারন প্রতিটি কোম্পানি তার পরিষেবা এবং পণ্য প্রচারের জন্য ডিজিটাল বিপণনের সর্বাধিক ব্যবহার করে। এটি আপনার ব্যবসার বিস্তার এবং ব্র্যান্ডের মান বাড়ানোর সর্বোত্তম উপায়। তাই আজকের সময়ে, প্রতিটি সংস্থা তার ব্যবসায়ের নামে নিজের ওয়েবসাইট তৈরি করে। যখন একটি কোম্পানি একটি নতুন ব্যবসা বা একটি নতুন পণ্য আরম্ভ। সুতরাং, তারপরে, এটি সফল করার পক্ষে সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এটি এমন একটি উপায় যা হ'ল পণ্যটিকে আরও বেশি মানুষের কাছে বিতরণ করা যেতে পারে। এর আগে, প্রতিটি প্রধান কোম্পানি তার বিপণন প্রচার চালানোর জন্য টিভি, সংবাদপত্র, পত্রিকা, রেডিও, পোস্টার এবং ব্যানারের মতো পদ্ধতি ব্যবহার করে। এবং অনেক কোম্পানি বাড়িতে যেতে এবং তাদের পণ্য সম্পর্কে কথা বলতে হবে। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে মার্কেটিং পদ্ধতিতে পরিবর্তন হয়েছে। এখন ইন্টারনেট বিশ্বের বৃহত্তম বিপণন স্থান হয়ে উঠেছে। এটি একটি বড় কোম্পানি বা একটি ছোট কোম্পানি কিনা, সবাই এখন বিপণন করার জন্য ইন্টারনেট ব্যবহার করে। যা ডিজিটাল বিপণন বলা হয়। বিশ্বের 85% মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে। এবং এই পরিসংখ্যান প্রতিদিন বাড়ছে। তাই ডিজিটাল বিপণন খুব দ্রুত বর্ধনশীল হয়। ডিজিটাল মার্কেটিং খুব দ্রুত ভারতে ক্রমবর্ধমান হয়। যেহেতু ভারত থেকে ইন্টারনেট তথ্য সস্তা হয়েছে তাই, ভারতের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। ইন্টারনেট ব্যবহার করে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ ভারত। সুতরাং, এখন বিস্তারিত ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে জানা যাক। Concept of Digital marketing ডিজিটাল মার্কেটিং এই দুটি ভিন্ন শব্দ। ডিজিটাল এখানে ইন্টারনেটের সাথে এবং মার্কেটিং নিবন্ধন সম্পর্কিত। ডিজিটাল মার্কেটিং এমন একটি উপায় যা আমরা আমাদের ব্যবসা বা আমাদের পণ্য অনলাইনে বিক্রি করতে পারি, আমরা এটি বৈদ্যুতিন মিডিয়া বলতে পারি। ডিজিটাল মার্কেটিং প্রায়ই অনলাইন মার্কেটিং, ইন্টারনেট মার্কেটিং বা ওয়েব মার্কেটিং পাওয়া যায়। এখন আপনি ভাবছেন যে এটি কেন অনলাইন মার্কেটিং, ইন্টারনেট মার্কেটিং বা ওয়েব মার্কেটিংয়ে বেশি। এই কারণেই অনলাইন মার্কেটিং, ইন্টারনেট মার্কেটিং বা ওয়েব মার্কেটিংটি তিনটিতে সর্বাধিক অনলাইন কাজ পাওয়া যায়। ডিজিটাল মার্কেটিং শুধু ব্যবসার জন্য নয় বা কোনও পণ্য প্রচারের জন্য নয়, তবে ডিজিটাল মার্কেটিং এর মতো আরও অনেক কিছু রয়েছে। যা আমার মত ডিজিটাল বিশ্বের খুব জনপ্রিয় - আপনার ওয়েবসাইট যা আজকে মানুষকে তৈরি করছে। কিন্তু খুব কম লোক যারা তাদের ওয়েবসাইটকে শীর্ষ স্তরে পেতে পারেন। কেন ডিজিটাল মার্কেটিং প্রয়োজন? আজকের দিনে ফেসবুকে বেশি সময় কাটায়, তারা ফেসবুকে বন্ধু ও পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে। টিভি দেখার পরিবর্তে তারা YouTube এ ভিডিও দেখতে ভালবাসে। এবং সংবাদপত্র পড়ার পরিবর্তে, তিনি অনলাইন ব্লগ পড়েন। এজন্যই আজকের ডিজিটাল মার্কেটিং সুযোগ উচ্চ। এবং পরবর্তী 10 বছরে, সুযোগ আরও বড় হয়ে যাবে। কিভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং করবেন আজকাল, বড় রাজনৈতিক দলগুলি তাদের দলের প্রচারের জন্য ডিজিটাল এবং অনলাইন ইন্টারনেট মার্কেটিং ব্যবহার করছে। এবং খুব সফল হচ্ছে। সুতরাং আসুন এই ডিজিটাল মার্কেটিং কি ধরনের বিজ্ঞাপনের বিজ্ঞাপন জানাতে পারি। 1- Display Advertising বিজ্ঞাপনের এই প্রকারে, আমরা আমাদের পণ্যতে 10-20 সেকেন্ড ভিডিও বা GIF চিত্র বা ব্যানার বিজ্ঞাপনগুলি তৈরি করি এবং আপনার পণ্য বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে এটি তুলে ধরে। 2- Text Ads যখন কোনও ব্লগ বা ওয়েবসাইটে পাঠ্য বা ভিডিও প্রদর্শিত হয়, তখন এটি পাঠ্য বিজ্ঞাপন বলে। 3- Blogging Ads যখন পণ্য বিজ্ঞাপনে একটি ব্লগ আসে, এটি সেই ব্লগ পোস্টের কীওয়ার্ড সম্পর্কিত। অথবা ব্যবহারকারীর ওয়েবসাইট থেকে ব্যবহারকারীর আগ্রহ তার ব্রাউজারের ক্যাশ থেকে নেওয়া হয়। এবং বিজ্ঞাপনদাতা ব্যবহারকারীকে দেখানো হয়, তাই, একটি ব্লগিং বিজ্ঞাপন বলা হয়। আপনি ব্লগের মাধ্যমে আপনার পণ্য বা পরিষেবা প্রচার করতে পারেন। এটি একটি বিনামূল্যে ব্লগ বা একটি প্রদত্ত ব্লগ হতে পারে। এটা কোন পার্থক্য করে না, শুধু এটি আপডেট রাখতে হবে। 4- Social media marketing যখন আপনি ফেসবুক, টুইটার এবং লিঙ্কডইন, ইনস্টগ্রাম নামে একটি সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেন, তখন আপনি দেখতে পাবেন যে কিছু ব্যবহারকারী বন্ধুত্বপূর্ণ বিজ্ঞাপন সময় রেখায় দেখায়। ব্যবহারকারীর ব্রাউজিং ক্যাশ এবং অনুসন্ধানের ইতিহাসের ভিত্তিতে কোন প্রদর্শন। আপনি যদি সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপন দেন তবে ফিল্টার দিয়ে আপনাকে সাহায্য করার জন্য আপনি এটি নির্ধারণ করতে পারেন, আপনি লিঙ্গ এবং বয়স সেট আপ করতে পারেন। এই বিজ্ঞাপনটি সবচেয়ে সস্তা এবং সবচেয়ে কার্যকর। ফেসবুক একটি মহান বিজ্ঞাপন প্ল্যাটফর্ম। যার মাধ্যমে আপনি আপনার লক্ষ্যযুক্ত শ্রোতাটিকে খুব সস্তা এবং কার্যকর পদ্ধতিতে পৌঁছাতে পারেন।পেইজ খুলে ডিজিটাল মার্কেটিং করতে পারেন। আপনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং জগতে টুইটারকে উপেক্ষা করেন তবে আপনি একটি বড় ভুল করেছেন। এই মুহুর্তে টুইটারের 300 মিলিয়ন ব্যবহারকারীর বেশি আছে। এবং প্রতিদিন অনেক ব্যবহারকারী এটি যোগদান করছেন, তাই এটি ফেসবুক মত ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের জন্য একটি ভাল প্ল্যাটফর্ম। 5- ইমেইল মার্কেটিং বা ইমেইল বিজ্ঞাপন এর মাধ্যমে আপনি ইমেজ, ভিডিও বা জিআইএফ বা এইচটিএমএল সরাসরি আপনার ইমেইলের ইনবক্সে তথ্য পাঠান যা বিক্রয় এবং ট্রাফিক বৃদ্ধি করে। 6- চ্যাট বিজ্ঞাপন যখন আপনি সোশ্যাল মিডিয়া চ্যাট ব্যবহার করেন, তখন আপনি আপনার পণ্য তথ্য গ্রাহকের কাছে পাঠান। এই ধরণের বিজ্ঞাপনে আমরা 10-20 সেকেন্ড ভিডিও বা জিআইএফ ইমেজ বা ব্যানার বিজ্ঞাপন তৈরি করে আপনার পণ্যটি হাইলাইট করে এবং বিজ্ঞাপন দিই। সুতরাং, এটি চ্যাট বিজ্ঞাপন বলা হয়। চ্যাট বিজ্ঞাপন এবং ইন্টারনেট মার্কেটিংয়ের আরও অনেক উপায় রয়েছে। এই ধরণের বিজ্ঞাপনে, আমরা আপনার পণ্যটি হাইলাইট করে এবং এটি বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে 10-20 সেকেন্ড ভিডিও বা GIF চিত্র বা ব্যানার বিজ্ঞাপনগুলি তৈরি করি। বাজারে প্রচুর সরঞ্জাম রয়েছে যার মাধ্যমে আপনি আপনার গ্রাহককে লক্ষ্য করতে পারবেন। কিছু উপায় পদ্ধতি - Floating Ads Web banner Ads Frame Ads Pop-Up/ Pop under Ads Expanding Advertising Trick banner Interstitial Ads Online Classified Ads Adware Supplemental marketing ডিজিটাল বিপণনের সুবিধাঃ ডিজিটাল মার্কেটিং এর সুবিধা সমূহঃ ডিজিটাল মার্কেটিং এর সুবিধা সমূহ সম্পর্কে নীচে বর্ণনা করা হল: অনেক কাস্টমারের কাছে পণ্য সম্পর্কে জানানো। সঠিক কাস্টমার চিনহিত করা। কম ব্যয় সুলভ। ব্যবসার গতিবিধি সহজে বুঝা। কম খরচে অধিক মুনাফা। বিশ্বায়ন বৃদ্ধি। পণ্য লোগো দ্রুত ডেলিভারি ফ্রি ব্লগ তৈরি করে অর্থ উপার্জন করুন। একটি লোগো গ্রাফিক তৈরি করে অর্থ উপার্জন করুন। ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে সবচাইতে বেশি মানুষের কাছে পণ্যের প্রচার করা যায়, এবং ডিজিটাল মার্কেটিংয়েই সবচাইতে বেশি ব্যবসায়িক সফলতা পাওয়া যায়। অনেক ধরণের ব্যবসা আছে যে গুলো গড়েই উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংকে কেন্দ্র করে।খুব সহজে ক্রেতার কাছে পৌঁছানো যায় বলে, অনলাইন ব্যবসায়ীদের জন্য তো অবশ্যই।

Thursday, 25 April 2019

গুগল adsense কি কিভাবে গুগল adsense ব্যবহার করবেন এবং আয় করবেন?

April 25, 2019 0

অ্যাডসেন্স শব্দটির সাথে আমরা কম-বেশি সবাই পরিচিত। অনেকের মনে একটা প্রশ্ন আসে অ্যাডসেন্স থেকে কি সত্যিই আয় করা যায়? উত্তর হচ্ছে, হাঁ অ্যাডসেন্স থেকে বিভিন্নভাবে আয় করা যায়। শুধুমাত্র সঠিক গাইডলাইনের অভাবে অনেকে অ্যাডসেন্স কাজ করতে গিয়ে ব্যার্থ হয়। অনলাইন থেকে আয় করার যত পদ্ধতি আছে তার মধ্যে গুগল অ্যাডসেন্স অন্যতম। বিজ্ঞাপনের সাইজ এবং ডিজাইনের কারণে এটিকে সবাই পছন্দ করে। এছাড়া গুগল অ্যাডসেন্স হতে অর্জিত টাকা গুগল খুব বিশ্বস্ততার সাথে পরিশোধ করে। এ সব কারণে গুগল অ্যাডসেন্স সবার শীর্ষে অবস্থান করছে। চলুন প্রথমে জেনে নেই অ্যাডসেন্স কি ? গুগল অ্যাডসেন্স থেকে আয় করার আগে চলুন অ্যাডসেন্স সম্পর্কে একটু জেনে নেই। সবাই নিশ্চয় জানেন যে, গুগল অ্যাডসেন্স হচ্ছে ইন্টারনেটভিত্তিক একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থা, যেটি গুগল নিজে পরিচালনা করছে। গুগল বিভিন্ন কোম্পানির কাছে অর্থের বিনিময়ে তাদের আওতাধীন যত ওয়েবসাইট আছে সেসবগুলিতে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে আয় করে। গুগল অ্যাডসেন্স বিজ্ঞাপন থেকে যত টাকা আয় করে তার ৬৮ ভাগ টাকাই দিয়ে থাকে পাবলিশারদের এবং বাকী ৩২ ভাগ টাকা নিজেরা ভোগ করে। গুগল অ্যাডসেন্স সাধারণত বিভিন্ন ধরনের টেক্সট, ছবি এবং ভিডি‌ও আকারে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে থাকে। এ সব বিজ্ঞাপনে Per-Click এবং Per-Impression হিসেব করে পাবলিশারদের টাকা প্রদান করে থাকে। আশা করি অ্যাডসেন্স কি সেটা বুঝে গেছেন। কিভাবে গুগল অ্যাডসেন্স কাজ করে? গুগল অ্যাডসেন্স এর একটি বিশালাকারে শাখা এবং ডেভেলপার টিম রয়েছে, যারা প্রতিনিয়ত এটিকে দিনের পর দিন ভাল অবস্থানে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। গুগল সাধারণত প্রথমে একটি সাইটের যাবতীয় তথ্য এবং Cookies সংগ্রহ করে। তারপর বিশেষ পোগ্রামিং এবং JavaScript এর মাধ্যমে কনটেন্ট এর উপর ডিপেন্ড করে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে থাকে। এ সব বিজ্ঞাপন পাবলিশারদের দুটি উপায়ে আয় করার সুযোগ দেয়। কিছু ওয়েবসাইটের জন্য কেবল যারা ঐ সাইটটি ওপেন করে বিজ্ঞাপন দেখে এবং কিছু ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপনে ক্লিক করার মাধ্যমে রেট-ভিত্তিক টাকা প্রদান করে থাকে। তবে প্রত্যেকটি ব্লগ/ওয়েবসাইটের Ranking এর উপর ভিত্তি করে আলাদা আলাদা বিজ্ঞাপন দেখার এবং ক্লিক রেটও রয়েছে। তাছাড়া বিজ্ঞাপনের সাইজ ও ধরণ অনুযায়ীও বিজ্ঞাপনের ক্লিক রেট ভিন্ন হয়ে থাকে।

Thursday, 28 March 2019

পাইথন(Python) টিটোরিয়াল পর্ব -২

March 28, 2019 0
পাইথন(Python) টিটোরিয়াল পর্ব -২



সবাই কেমন আছেন। আশা করি ভালো আছেন। আপনাদের মধ্যে আবারও পাইথন টিটোরিয়াল নিয়ে ফিরে এলাম।

আপনাদের অপেক্ষার জন্য ধন্যবাদ।

আজ আমরা পাইথন(Python) এর ভেরিয়েবল(Variable) শেখার চেষ্টা করব।


ভেরিয়েবল এর সংজ্ঞা (Definition of Variable)

প্রোগ্রামিংয়ের প্রেক্ষাপটে একটি ভেরিয়েবল(Variable), একটি অচেনা নাম যা প্রত্যক্ষ তথ্যটিকে স্বতন্ত্রভাবে ব্যবহার করার অনুমতি দেয়। ভেরিয়েবলগুলি ডাটা স্টোরেজে অবস্থান করে এবং একটি ভেরিয়েবলের মান সাধারণত প্রোগ্রাম এক্সিকিউশনের সময় পরিবর্তিত হয়। 

ভেরিয়েবলগুলি মান বুলিয়ান(Boolean), নাম(Name), পূর্ণসংখ্যা(Integer), অ্যারে(Array), ছবি(Picture), শব্দ(Sound), স্কেলার(Scalar), স্ট্রিং(String) বা কোনো বস্তু বা বস্তুর বর্গ সহ সমস্ত ধরণের তথ্য হতে পারে এবং এটি সম্পূর্ণভাবে উপস্থাপিত প্রোগ্রামিং ভাষার উপর নির্ভর করে।

নোট ঃ ভেরিয়েবল(Variable) শব্দের আসল অর্থ হলো পরিবর্তনশীল। অতএব প্রোগ্রমিং এর ক্ষেত্রেও ভেরিয়েবল(Variable) মান ও অবশ্যই পরিবর্তনশীল ।


পাইথনে ব্যবহৃত ভেরিয়েবলসমূহ (Variables used in Python)


পাইথনে ব্যবহৃত কমন(Common) ভেরিয়েবলসমূহ হলো ঃ

  • String
  • Integer
  • Float
  • Boolean
  • List (Array)
  • Dictionary
  • Set

উদাহরণ (Examples)

String

Integer

Float

Boolean

List (Array)

Dictionary

Set


আজ আমরা এই পর্যন্ত শিখবো। ৩য় পর্বে আমরা কনডিশন (Condition) নিয়ে জানবো।

Wednesday, 27 March 2019

Freebitco.in site earning tips tricks

March 27, 2019 0
Freebitco.in site earning tips tricks

Best Bitcoin Faucet Site
Tustesd Payment Paying Site
Roll Every 1 Hour
Minimum Withdrew : 0.0003 BTC
Singup Link : https://freebitco.in/?r=17779739
.
https://freebitco.in/?r=17779739
..

More Earning information Freebitco.in Site Seen Step By Step

1. Free Roll:-
This is the faucet portion of the site. Here you get free-roll every hour. On each free roll, users get rewards points, lottery tickets, and free
bitcoin. All you need to complete the captcha every hour, tap roll and your number will come up. This corresponds to your reward, and that
will be credited to your freebitco.in account. This bitcoin varies based on the number you get by rolling every hour. Almost every time, you will receive the minimum prize of $0.02 and the maximum prize of $200 in bitcoin. The USD price
is fixed, but because of bitcoin price fluctuates so does the prize in bitcoin may be varied.
2. Multiple BTC:-
Particularly popular is their Multiply BTC feature, where you can play a probably free and fair HI-LO game. Basically, all you need to gamble with your earned bitcoin to try and multiply them by up to 4,750 times. But I will not recommend you
to play this game to earn bitcoin if you are new to this gameplay.
3. Earn Bitcoin:-
It really not only to earn Bitcoin, as much as it is, the “Bitcoin Savings Bank” also. You will receive compounded daily interest on any
balance that you hold in your FreeBitco.in account, without doing anything. Essentially, FreeBitco paying interest on freebitco accounts with more than 30,000 satoshis. The current interest rate is compounded daily at 0.0109589%,
which adds up to 4.08% a year interest.
4. Lottery:-
The lottery prizes can get pretty high, always more than 0.75 Bitcoin ($8,600+ USD), the chances of winning are astronomically low too!
With 300-500 million tickets being distributed in each drawing, it’s typically not worth it to invest
your free satoshi here. And this lottery draw event happens every week. You will receive 2 free lottery tickets for every FREE BTC roll you
play, 1 ticket for every roll your referrals play and 1 ticket for every 0.00001000 BTC that you wager in the MULTIPLY BTC game!
5. Reward Points:-
Reward points can be used on a variety of things. You can order prizes like a ledger wallet or a trezor, and even an iPhone X. The best thing is to use the reward points to increase your Bitcoin free roll claims up to 1000%! This only costs 3200 reward points. You will receive 2 free
reward points for every FREE BTC roll you play, 1 point for every roll your referrals play and 1 point
for every 0.00001000 BTC that you wager in the MULTIPLY BTC game!
6. Contest:-
Participate in monthly wagering in multiply BTC game and referral contest with $30,000 in total
prizes. To win the wagering contest with $20,000 in total prizes, you must need rank in the top 10
users by wagering volume for the month and to win the referral contest with $10,000 in total
prizes, you just need to rank in the top 10 users by combined wagering volume of your referrals for the month.
7. Withdraw:-
Minimum bitcoin withdraw amount is 30,000 sathosi which means almost 0.00030000 BTC.
8. Join My Refer Please
Refer Link : https://freebitco.in/?r=17779739

Sunday, 17 March 2019

ফেইক ওয়েবসাইট কিভাবে চিনবেন?

March 17, 2019 0



বর্তমানে অনলাইন জগতে অনেক ফেইক ওয়েবসাইট আছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুয়া খবর ছড়াতে বিভিন্ন নামী দামী ওয়েবসাইটের আদলে নকল ওয়েবসাইট তৈরি করে  তাতে ভুয়া খবর প্রকাশ করে পাঠকদের বিভ্রান্ত করা হচ্ছে।বেশিরভাগ পাঠক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পাওয়া এসব খবর দেখে চিনতে পারেন না কোনটি আসল আর কোনটি নকল।
 

আজ আমি এসব ভুয়া ওয়েবসাইট চেনার কয়েকটি উপায় নিয়ে আলোচনা করবঃ

১. গুগলে সার্চ দেওয়াঃ
যদি কোনো সংবাদ দেখে ভুয়া মনে হয় তাহলে সেটা প্রথমে গুগলে সার্চ দিয়ে নিশ্চিত হয়ে নিবেন যে প্রকৃতপক্ষে সেটা সত্য কিনা। 

২. ডোমেইনটি ভালো করে দেখুনঃ 
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের যদি এমন খবর দেখতে পান, যা বাস্তবের সঙ্গে মিল নেই, তখনি আপনার সতর্ক হওয়া উচিত। যখনই কোন সন্দেহজনক সংবাদ চোখে পড়বে, তখনই উচিত ডোমেইনটি চেক করে দেখা তা ভুয়া না ঠিক।
৩. ICANN ওয়েবসাইটে গিয়ে চেক করুনঃ
পৃথিবীর সকল ওয়েবসাইট এর তথ্য দেখভাল করে থাকে আইক্যান (ICANN)। কোনো ওয়েবসাইট নিয়ে আপনার সন্দেহ হলে, আইক্যানের ডোমেইন অনুসন্ধান পাতায় গিয়ে তাদের ওয়েবসাইট ঠিকানাটি লিখে অনুসন্ধান করুন। আইক্যান (ICANN) এর ওয়েবসাইট (https://whois.icann.org/en)
এখানে গেলে দেখতে পাবেন ওয়েবসাইটটি  কে তৈরি করেছে, কবে তৈরি হয়েছে।





মোবাইল ফোন ব্যবহারে কি ক্যান্সার হয় ?

March 17, 2019 0



এখন পর্যন্ত কোনো বৈজ্ঞানিক পরীক্ষায় প্রমানিত হয়নি যে মোবাইল এর কারনে ক্যান্সার হয়। 

 রেডিয়েশন! এই শব্দটার সাথে আমরা সবাই কম বেশি পরিচিত, আমরা সবাই এটা নিয়ে ভয়ে থাকি, আমারা মনে করি রেডিয়েশনের কারনে আমাদের ক্যান্সার বা অন্য ক্ষতি হতে পারে। অনেকেই মনে করেন "টানা অনেকক্ষন ফোন কানে নিয়ে কথা বললে মস্তিষ্কে ক্যান্সার হতে পারে আবার পকেটে বা পাশে রাখা মোবাইল ফোনের রেডিয়েশন থেকে শারীরিক ক্ষতি হতে পারে” ইত্যাদি ইত্যাদি।
কিন্তু বিজ্ঞান বলে অন্য কথা- 
 অ্যামেরিকান ক্যান্সার সোসাইটির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, মোবাইল ফোনের রেডিয়েশন হচ্ছে রেডিওফ্রিকোয়েন্সি রেডিয়েশন যা মানুষের দেহকে ক্ষতিগ্রস্ত করে টিউমার সৃষ্টি করার মতো যথেষ্ট পরিমান শক্তিশালী নয়। এগুলোকে বলে ‘নন-আয়োনাইজিং’ রেডিয়েশন। এ রকম আরও কিছু ‘নন-আয়োনাইজিং’ রেডিয়েশন হচ্ছে এফএম রেডিও, মাইক্রোওয়েভ এবং দৃশ্যমান আলো।

 এটা নিয়ে অনেক গবেষণা হয়েছে, কিন্তু সরাসরি মোবাইল ফোনের রেডিয়েশনকে মানুষের জন্য ক্যান্সারের কারণ হিসেবে কেউ ১০০% প্রমাণ করতে পারেনি। তবে বিজ্ঞানীরা অনেকবার এর ঝুঁকির ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়েছেন।
তবে একটা কথা বলবো ঘুমানোর সময় ফোনটা মাথার কাছ থেকে দূরে রাখা ভাল এতে কোনো ঝুকিতে থাকতে হচ্ছেনা। 
আশা করি আমার কথা বুঝতে পেরেছেন সবাই।

আরোও নতুন নতুন কিছু জানতে এই ওয়েবসাইটটিতে নিয়মিত ভিজিট করুন...ধন্যবাদ।

Sunday, 10 March 2019

Blogger এ কিভাবে কোনো কোড ইমবেড (Embed) করবেন

March 10, 2019 4
Blogger এ কিভাবে কোনো কোড ইমবেড (Embed) করবেন

ব্লগার ( Blogger ) কি ?

ব্লগার (Blogger) একটি ব্লগ(Blog) প্রকাশক পরিষেবা যা বহু-ব্যবহারকারী ব্লগগুলিকে সময়-স্ট্যাম্পযুক্ত এন্ট্রিগুলির সাথে মঞ্জুরি দেয়। এটি পাইরা ল্যাবস( Pyra Labs ) দ্বারা তৈরি করা হয়েছিল, যা ২003 সালে গুগল কিনেছিল। ব্লগগুলি গুগল দ্বারা হোস্ট করা হয় এবং সাধারণত blogspot.com এর সাবডোমেন থেকে অ্যাক্সেস করা হয়। ব্লগগুলি Google এর সার্ভারে ডোমেন পরিচালনার জন্য DNS সুবিধাগুলি ব্যবহার করে ব্যবহারকারীর মালিকানাধীন একটি কাস্টম ডোমেন (যেমন www.example.com) থেকেও সরবরাহ করা যেতে পারে। একজন ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট প্রতি 100 টি পর্যন্ত ব্লগ থাকতে পারে।

1 মে, ২010 পর্যন্ত ব্লগার ব্যবহারকারীদের তাদের নিজস্ব ওয়েব হোস্টিং সার্ভারে FTP প্রকাশের মাধ্যমে ব্লগ প্রকাশ করার অনুমতি দেয়। এই ধরনের সকল ব্লগগুলি একটি blogspot.com সাবডোমেন ব্যবহার করতে পরিবর্তিত হতে হবে, অথবা DNS এর মাধ্যমে তাদের নিজস্ব ডোমেনকে Google এর সার্ভারগুলিতে নির্দেশ করতে হবে।

কেন কোড ইমবেড ( Embed ) করবো ?

আমরা বর্তমানে ব্লগার (Blogger) ব্যবহার করে বিভিন্ন প্রোগ্রামিং নিয়ে শিক্ষামূলক পোস্ট করে থাকি।
এক্ষেত্রে বাস্তব কোডের (Code) উদাহরণ দেয়া খুবই জরুরী হয়ে পরে। এর ফলেই আমরা এক্সাম্পেল (Example) কোড (Code) দিয়ে থাকি। 

কিভাবে কোড ইমবেড ( Embed ) করবো ? 

  • এরপর প্রয়োজন মতো কোড লিখে নিই।
  • কোডটি সেভ করি।
  • এরপর ইমবেড (Embed) বাটনে ক্লিক করি। এতে একটি কোড কপি হবে।


  • এরপর ব্লগারে যে পোস্টে কোড ইমবেড (Embed) করতে চাই সেই পোস্টে HTML এডিটিং মুডে চলে যাই এবং যে স্থানে কোড ইমবেড করবো সেখানে পেস্ট করি।
  • এভাবে আমরা খুব সহজে যেকোনো কোড ইমবেড (Embed) করতে পারি।

- আজ এই পর্যন্ত লিখলাম, ধন্যবাদ।






Friday, 8 March 2019

পাইথন(Python) টিটোরিয়াল পর্ব -১

March 08, 2019 2
পাইথন শিখতে সহজ, অত্যন্ত পঠনযোগ্য, এবং ব্যবহার করা সহজ। এটিতে একটি পরিষ্কার এবং ইংরেজী কথনের মতো সিনট্যাক্স রয়েছে যার ফলে কম কোডিংয়ের প্রয়োজন এবং প্রোগ্রামারকে ভাষাটির নীরবতা সম্পর্কে চিন্তা করার পরিবর্তে মূল যুক্তিতে সহজে ফোকাস করতে দেয়।

নিচের অংশগুলিতে আমরা পাইথনের ইতিহাস, বৈশিষ্ট্য এবং কিভাবে তা উইন্ডোজ প্ল্যাটফর্মর ইনস্টল এবং চালানো যায় তা জানব।


পাইথন এর ইতিহাস

ডাচ প্রোগ্রামার, গুইডো ভ্যান রসুম 1980 এর শেষ দিকে পাইথনকে শখ বশত প্রোগ্রামিং ভাষা হিসাবে লিখেছিলেন। তখন থেকে এটি কম্পিউটিং বিশ্বের সবচেয়ে পালিশ ভাষা এক হয়ে উঠছে।


পাইথনের বৈশিষ্ট্য

  • ডেভেলপার ফ্রেইন্ডলি
  • অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড
  • ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনে ব্যবহারযোগ্য
  • বৈজ্ঞানিক এবং সংখ্যাসূচক কম্পিউটিং এর জন্য খুবই ভালো
  • GUI প্রোগ্রামিং এর জন্য ব্যবহারযোগ্য
  • খুব সহজে সফ্টওয়্যার প্রোটোটাইপিং করা যায়

কেন আপনি পাইথন প্রোগ্রামিং শিখবেন?

পাইথন কোড লেখা খুব মজা যে আপনি এটি একটি রুটিন প্রোগ্রামিং টাস্ক মনে করবেন না। পাইথন কেনো শিখবেন তার কিছু কারন নিচে দেয়া হলো।

  • Nonrestrictive প্রোগ্রামিং সিনট্যাক্স
  • সহজে ডিবাগিং করা যায়
  • সেমিকোলোন নেই :p

কিভাবে উইন্ডোজে পাইথন ইনস্টল করবেন?

  • উইন্ডোজ এ পাইথন ইনস্টল করার জন্য এই পেজে যান, পছন্দসই প্যাকেজ নির্বাচন করুন এবং ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন। আমরা Latest Python 3 Release প্যাকেজটি নির্বাচন করবো।
  • এরপর নিচের ইমেজের মত অপশন দিয়ে কনটিনিউ করব।
Python Setup
  • খুব সহজেই আমরা পাইথন ইন্সটল করে নিলাম।

বেসিক পাইথনের উদাহরণ



আজকে এই পর্যন্তই লিখলাম। নেক্সট পর্বে বেসিক কোডটার ব্যাখ্যা দিব।

- ধ্যনবাদ

Thursday, 7 March 2019

আপনার ব্লগার সাইটের পোস্টে দিন চলতি লেখা [ How To Make Run Effect Writing On Blogger Post trick by itpriyobd.com

March 07, 2019 0
আসসালামু আলাইকুৃম আইটি প্রিয় বিডিতে স্বাগত আবার ও একটি আকর্ষনীয় পোস্ট নিয়ে এসেছি। আজ আমরা শিখবো কিভাবে ব্লগার সাইটে পোস্টের মধ্যে চলতি লেখা লিখবেন
এইরকম এজন্যে একটি এক্সটিএমএল কোড ব্যবহার করতে হবে কোড টি আমি কমেন্ট বক্সে দিয়ে দিলাম কোডটি কপি করেন আর আপনার ব্লগের পোস্টের যে জায়গায় দিতে চান সেখানে কোডটি পেস্ট করুন আর welcome to itpriyobd.com এর জায়গায় আপনার যা লিখার লেখে দিন। ব্যাস এখানেই কাজ শেষ এবার আরো আকর্ষনীয় করে গড়ে তুলুন আপনার ব্লগার সাইট যদি কোন সমস্যা হয় কমেন্ট করবেন।